পাতা

একনজরে

 

 

 

১. ভিশন :  পাটখাতকে নিরাপদ, শক্তিশালী ও প্রতিযোগিতা সক্ষম করে গড়ে তোলা

 

২. মিশন :  পাটচাষী, পাটকল ও ব্যবসায়ীদেরকে সহায়তা প্রদানের মাধ্যমে পাট ও পাটজাত পণ্যের অভ্যন্তরীণ ব্যবহার বৃদ্ধি ও  বাজার সম্প্রসারণ ।

 

৩. কৌশলগত উদ্দেশ্যসমূহ :

□ পাট ও পাটজাত পণ্যের ব্যবসায়ে সহযোগিতা প্রদানের নিমিত্ত আইন ও বিধিমালা প্রয়োগ ও জোরদারকরণ;

□  দক্ষ ও প্রয়োজনীয় জনবল তৈরীর নিমিত্ত সাংগঠনিক কাঠামো সুসংগঠিতকরণ;

□  প্রশিক্ষণের মাধ্যমে মানবসম্পদ উন্নয়ন;

□ পাট ও পাটজাত পণ্যের উৎপাদন, মান নিয়ন্ত্রণ, অভ্যন্তরীণ ব্যবহার বৃদ্ধি ও আন্তর্জাতিক বাজার সম্প্রসারণে সহযোগিতা প্রদান;

□  পাটখাতে বিনিয়োগের সুযোগ সম্প্রসারণ ‍।

 

৪. পাট অধিদপ্তরের গঠন ইতিহাসঃ

 

১৯৯২ সালে তৎকালীন পাট পরিদপ্তর ও পাটপণ্য পরিদর্শন পরিদপ্তর একীভূত হয়ে পাট অধিদপ্তর প্রতিষ্ঠিত হয়। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই দেশের পাট উৎপাদন প্রবণ ৪২ টি জেলায় পাট অধিদপ্তরের কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে।

 

৫. পাট অধিদপ্তরের উল্লেখযোগ্য কার্যাবলীঃ

 

  • পণ্যে পাটজাত মোড়কের বাধ্যতামূলক ব্যবহার আইন-২০১০ প্রয়োগ ও বাস্তবায়ন;
  • পাট আইন-২০১৭ প্রয়োগ ও বাস্তবায়ন;
  • জাতীয় পাটনীতি-২০১৮ বাস্তবায়ন;
  • পাট ও পাটজাত পণ্যের ব্যবসার লাইসেন্স প্রদান ও নবায়ন;
  • পাট ও পাটপণ্য উৎপাদন, বাজারজাতকরণ, রপ্তানি ও রপ্তানি আয়ের যাবতীয় তথ্যাদি সংগ্রহ ও সমন্বিত প্রতিবেদন প্রস্তুতকরণ;
  • পাট চাষের উন্নয়ন, প্রসার, গবেষণা ;
  • স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক বাজার চাহিদার সাথে সঙ্গতি রেখে পাট ও পাটজাত পণ্যের উৎপাদন বৃদ্ধি ;
  • পাট চাষের জন্য ভূমি ব্যবহার পরিকল্পনা প্রণয়ন ;
  • বহুমুখী পাটজাত পণ্যের গবেষণা, উদ্ভাবন ;
  • পাট চাষীদের প্রয়োজনীয় তথ্য সরবরাহ ;
  • পাটজাত পণ্যের ব্যবহার বৃদ্ধি, বাজার সম্প্রসারণে প্রয়োজনীয় প্রণোদনা Ges পুরষ্কার cÖ`vb বিষয়ে কার্যক্রম গ্রহণ;
  • পাটকলসমুহে উৎপাদন পর্যায়ে পণ্যের মান নিয়ন্ত্রণ, পণ্যের মান নিশ্চিতকরণ এবং পরামর্শ ও সহায়তা প্রদান;
  • পাট ব্যবসায়ের অনিয়ম ও অসাধুতা রোধ;
  • পাট ও পাটজাত দ্রব্যের মান নিয়ন্ত্রণ এবং
  • “উন্নত প্রযুক্তি নির্ভর পাট ও পাটবীজ উৎপাদন এবং সম্প্রসারণ” শীর্ষক প্রকল্প বাস্তবায়ন।

 

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter